এই সাইটের কোন লেখা কপি করা নিষেধ

স্ক্রীল/নেটেলার একাউন্ট ব্যবহারে সমস্যা? সতর্ক হবেন কিভাবে?

হাজার হাজার ফ্রীল্যান্সার এখন পেমেন্ট নেয় স্ক্রীল বা নেটেলারে। এছাড়া বিশ্বের বিভিন্ন দেশের অনলাইন ফরেক্স ট্রেডাররা বেশিরভাগই সরাসরি ব্যাংকের মাধ্যমেই তাদের ট্রেডিং একাউন্টে লেনদেন করে থাকে। কেউ কেউ ভিসা বা মাস্টারকার্ড দিয়ে লেনদেন সম্পন্ন করে। তবে তৃতীয় বিশ্বের অনেক দেশে নিরাপত্তা ইস্যুতে দেশের বাইরে ফান্ড পাঠানোয় নিষেধাজ্ঞা রয়েছে। ফলে ফরেক্স ট্রেডিং একাউন্টে ব্যালান্স ডিপোজিট বা উইথড্র করতে এসব দেশের ট্রেডারেরা থার্ড ব্যাংক হিসেবে বিভিন্ন অনলাইন পেমেন্ট মাধ্যম ব্যবহার করে। অনলাইন পেমেন্ট মাধ্যমগুলোর মাঝে সবচেয়ে জনপ্রিয় মাধ্যম নেটেলার ও স্ক্রীল।

ফরেক্স একাউন্টে ডিপোজিট ও উইথড্র এর ক্ষেত্রে এই মাধ্যমগুলোর উপর পুরোটাই নির্ভর করতে হয়।
সেক্ষেত্রে এসবের কোন এক মাধ্যম দ্বারা ডিপোজিট করার পর সেই মাধ্যম দিয়েই উইথড্র বাধ্যতামূলক করা থাকে। এখন কোন ট্রেডার যদি স্ক্রীলের মাধ্যমে তার একাউন্টে ফান্ড ডিপোজিট করে, এরপর সেই স্ক্রীল একাউন্টের কোন সমস্যা হয়, তাহলে তার ফরেক্স একাউন্টের ব্যালান্সও অনেক সময় আটকা পড়ে যায়। একই ঘটনা নেটেলার বা অন্যান্য অনলাইন পেমেন্ট মাধ্যমের ক্ষেত্রেও হতে পারে।

ইদানিং অনেক অভিযোগ দেখা যাচ্ছে, স্ক্রীল বা নেটেলার একাউন্ট ক্লোজড করেছে, লেনদেন করা যাচ্ছে না, রেসট্রিকশান করে দিয়েছে ইত্যাদি ইত্যাদি!
এসব সমস্যায় পড়ে অনেকের চরম উৎকন্ঠায় দিন পার করে থাকে।

এসবের পিছনে কিছু গুরুত্বপূর্ণ কারন থাকে যা আমরা নজরে আনি না। আজ আমি সেই বিষয় নিয়ে আলোচনা করব যাতে আজকের পর থেকে আপনার ফরেক্স একাউন্টে ডিপোজিট বা উইথড্র করার একমাত্র মাধ্যম নিয়ে কোন দুশ্চিন্তায় ভুগতে না হয়।

আসুন জেনে নেওয়া যাক সেগুলোঃ

নেটেলার/স্ক্রীল নিজের নামে খুলুন।
নিজের অরিজিনাল জাতীয় পরিচয়পত্র বা পাসপোর্ট বা ড্রাইভিং লাইসেন্স জমা দিন একাউন্ট ভেরিফাই করার জন্য।
আপনার নিজের অরিজিনাল ব্যাংক একাউন্টের স্টেটমেন্ট সাবমিট করুন।
এক সঙ্গে দুইটা ডিভাইসে একই সময়ে লগ ইন করবেন না। অর্থাৎ এক সাথে দুটো ল্যাপটপ বা একটি ল্যাপটপ ও একটি মোবাইল বা দুটো মোবাইলে আপনার স্ক্রীল/নেটেলার লগ ইন করবেন না।
নির্দিষ্ট একটি বা সর্বোচ্চ দুটো ডিভাইস ব্যবহার করুন আপনার একাউন্টে লগ ইন করার জন্য। আজ এক মোবাইল, কাল আরেক ল্যাপটপ, পরশু আরেক ডেস্কটপ, এমন করে একাউন্টে লগ ইন করবেন না।
 যে ইমেইল ব্যবহার করে স্ক্রীল/নেটেলার একাউন্ট খুলেছেন, সেই ইমেইলের ইনবক্স মাঝে মাঝে চেক করবেন। স্ক্রীল/বা নেটেলার থেকে কোন নোটিফিকেশন আসলে তা পড়ার চেষ্ঠা করুন।
কখনো অচেনা কারও সাথে লেনদেন করবেন না। কারন সেই অচেনা ব্যক্তি যদি প্রতারক হয়, আর সত্যিকারের প্রতারিত ব্যক্তি যদি কম্পলেইন করে, তাহলে সেই প্রতারকের ব্যবহার করা একাউন্টের সাথে আপনার একাউন্টও রেস্ট্রিকটেড করে দেওয়া হবে।
আপনার ট্রেডিং একাউন্ট থেকে প্রাপ্ত প্রফিট স্ক্রীল/নেটেলার হয়ে আপনার নিজের ব্যাংকে নিয়ে আসুন। তাতে আপনার একাউন্টের স্ট্যাবিলিটি আরও বেড়ে যাবে।

ব্যস, এটুকুই ভালভাবে ফলো করার চেষ্ঠা করবেন। আপনার স্ক্রীল/নেটেলার একাউন্ট নিয়ে কোন দুশ্চিন্তা করতে হবে না কখনো।

আপনার জন্য অনেক শুভকামনা রইল।

Comments (No)

Leave a Reply