এই সাইটের কোন লেখা কপি করা নিষেধ

গুগল অ্যাডসেন্স থেকে কিভাবে মাসে হাজার ডলার ইনকাম করবেন

প্রথমেই বলে রাখি গুগল অ্যাডসেন্স থেকে আপনি যদি ইনকাম করতে চাইলে আপনার একটি নিজের ওয়েব সাইট থাকা দরকার, তবে না থাকলেও যে আয় করা সম্ভব না তাও কিন্তু নয় । এই সাইট টা ফ্রি হলেও চলবে ।

গুগল অ্যাডসেন্স হলো বিশ্বের সবচেয়ে জনপ্রিয় আডভারটাইজিং মাধ্যম, যার মাধ্যমে আপনি আপনার ব্লগে গুগলের বিজ্ঞাপন দিয়ে টাকা ইনকাম করতে পারবেন। উপরের চিত্রে লাল অংশটুকু হলো গুগল অ্যাড। এই পোষ্টে আমি আপনাকে অ্যাডসেন্স সম্পর্কে একটি সংক্ষিপ্ত ধারণা দেয়ার চেষ্টা করব এবং কিভাবে এটি আমার ইনকাম এর একটি উপায় হলো তা শেয়ার করব। আপনিও ঘরে বসে ইনকাম করতে পারেন।

অনেকেই আছেন যারা অনেকবার চেষ্টা করার পরেও অ্যাডসেন্স   পাচ্ছেন না । তারা হয়ত জানেন না এখন Blogspot   ডোমেইন  এর জন্য খুব সহজেই অ্যাডসেন্স পাওয়া যায়।ওয়েবসাইট ছাড়াও ইউটিউব থেকে অ্যাডসেন্স দিয়ে টাকা আয় করা যায় ।এটা নিয়ে  আরেকদিন পোস্ট করব। আপনি চাইলে আমি করে দিতে পারি।

  • এটি Google (বিশ্বের আইটি জায়ান্ট) এর মালিকানাধীন। আপনার পেমেন্ট নিশ্চিত।
  • এটি Google এর আয়ের একটি বড় অংশ তৈরি করে। গুগলের মাসিক আয় সম্পর্কে আপনার নিশ্চয় ধারণা আছে। এই আয়ের কিছু অংশই গুগল আপনাকে দেয় প্রকাশক হিসেবে।
  • অ্যাডসেন্স বিজ্ঞাপনগুলি মোবাইল ডিভাইসগুলিতেও দেয়া যায়।
  • //www.google.com/adsense পূরণ করে এমন যে কোনও ওয়েবসাইটের সাথে যে কেউ অ্যাডসেন্স প্রোগ্রামে অংশগ্রহণ করতে পারে।
  • অ্যাডসেন্স এর কঠোর নিয়ম আছে যা কোন কারণে লঙ্ঘন করা উচিত নয়। একটি অ্যাডসেন্স প্রকাশক হিসাবে আপনার দায়িত্ব এবং নিয়ম অনুসরণ করাও আপনার গুরু দায়িত্বের মধ্যে পরে।
  • অ্যাডসেন্স ডেস্কটপ ওয়েবসাইট, ভিডিও, গেমস, মোবাইল অ্যাপস এবং আরও অনেক কিছুর জন্য উন্মুক্ত।
  • অ্যাডসেন্স বিজ্ঞাপন টেক্সট এবং ইমেজ সহ বিভিন্ন বিন্যাস এবং মাপ থাকে।
  • অ্যাডসেন্স প্রকাশকদের Google Inc. দ্বারা পেমেন্ট করা হয় যা সম্মানের ভাগীদার

গুগল অ্যাডসেন্স পাবার শর্ত:

১। আপনার ব্লগ বা ওয়েবসাইট নুন্যতম ৬ মাস পুরনো হতে হবে। ব্যাতিক্রম হতে পারে যদি আপনার ওয়েবসাইট ক্যাটেগরি একক হয় এবং আপনি সুন্দর করে সাজাতে পারেন তাহলে ১ মাসেও সম্ভব। এই ওয়েবসাইট মাত্র ২০ দিনের মাথায় অ্যাডসেন্স ছাড়পত্র পায়  কারন হিসেবে বলা যায় ইউনিক ক্যাটেগরি/ Unique Niche- আমার কথা

২। আপনার ওয়েবসাইটে মিনিমাম ৩০-৩৫ টা ইউনিক পোস্ট থাকতে হবে। অবশ্যই আপনার ওয়েবসাইটের ক্যাটেগরির সাথে মিল থাকতে হবে।

৩। আপনার ওয়েবসাইটে সকল পোস্ট/আরটিকেল ইউনিক হতে হবে। কোথাও থেকে কপি করে দেয়া যাবেনা।

ফেসবুক থেকে ব্যারিস্টার সুমনের আয় কত?

৪। অন্য কোন নেটওয়ার্ক এর এড আপনার সাইটে থাকলে, অ্যাডসেন্স আবেদনের পূর্বেই তা স্থগিত রাখুন। গুগল সাধারণত ফ্রেশ ওয়েবসাইট পছন্দ করে।

৫। আপনার ওয়েবসাইট Adult/Hacking রিলেটেড হওয়া যাবেনা।

৬। হোম পেইজ/লেন্ডিং পেইজ সিম্পল রাখুন। সাইট লোডিং টাইম ৩ সেকেন্ডের মধ্যে রাখুন। কারন গুগল স্লো সাইট পছন্দ করেনা। আপনার সাইট স্পীড টেস্ট করুন

৭। অ্যাডসেন্স কোড আপনার সাইটে সঠিক ভাবে বসান।

সকল শর্ত মেনে অ্যাডসেন্স আবেদন করে থাকলে গুগল সাধারণত ৭-১০ দিন সময় নেয় সাইট রিভিউ করার জন্যে।

অ্যাডসেন্স প্রকাশকদের জরুরী তথ্যঃ

CPC, CPM, CTR PPC কি?

CPC-Cost Per Click : গুগল অ্যাডসেন্স থেকে আয়ের সবচেয়ে ভালো উপায় হলো CPC. এর মানে, আপনার অওয়েবসাইটের ভিজিটর যতবার আপনার অ্যাড এ ক্লিক করবে আপনি টাকা পাবেন। তারমানে এই না, নিজেই নিজের অ্যাড এ ক্লিক করা যাবে। প্রকাশক নিজের অ্যাড এ ক্লিক করা কঠোরভাবে নিষেধ। গুগল আমাদের সবার চেয়ে অনেক বেশি স্মার্ট। আত্মীয়স্বজন দের দিয়ে অ্যাড এ ক্লিক করানো কৌশল করবেন না। গুগল ধরতে পারলে আপনার একাউন্ট বাতিল করে দিবে।

SEO করে মাসে ৪০-৫০ হাজার টাকা ইনকাম করা সম্ভব।

CPM- Cost per thousand Impression : ভিজিটর আপনার অ্যাড যতবার ভিউ করলো। প্রতি এক হাজার বার ভিউ এর জন্যে গুগল আপনাকে টাকা পে করবে।

CTR-Click Through Rate : আপনার কত শতাংশ ভিজিটর অ্যাড এ ক্লিক করলো। সাধারণত CTR ২-৫% হওয়া ভালো।

আপনি যদি বেশি CPC কিওয়ার্ড দিয়ে আর্টিকেল সাজাতে পারেন তবে ২-৫% CTR দিয়েও খুব ভালো ইনকাম করা যায়।

CTR ১৫% এর বেশি গেলে আপনার একাউন্ট বাতিল হয়ে যাবে। গুগল মনে করে ২-৫% CTR স্ট্যান্ডার্ড। এর বেশি মানে প্রকাশক নিজে বিভিন্ন উপায়ে অ্যাড এ ক্লিক করাচ্ছে যা গুগল এর নীতির বাইরে।

PPC-Pay Per Click : বিজ্ঞাপনদাতার উপর গুগল এই মেথড ফলো করে। এর মানে আপনার ওয়েবসাইট এ যে বিজ্ঞাপন গুগল দিবে তার উপর প্রতি ক্লিকে গুগল বিজ্ঞাপনদাতা থেকে যে অর্থ নিবে সেটাই PPC

ইনকাম কত করতে পারবেন?

ইনকাম আপনার আর্টিকেল লেখা এবং ওয়েবসাইট প্রচারের উপর নির্ভর করে। আপনার সাইটে যত বেশি ভিজিটর আসবে তত বেশি আপনার CPM হবে।

আর CPM বাড়লে CTR এমনিতেই বাড়তে থাকবে।

সর্বদা CTR খেয়াল রাখবেন। প্রতিদিন একবার হলেও আপনার অ্যাডসেন্স একাউন্টে লগইন করে দেখে নিন আপনার CTR

CTR ১০% এর বেশি হয়ে গেলে এড অফ করে দিন। ১ দিন দেখুন CTR রেট কমে আসলে আবার এড ডিস্প্লে করুন।

CTR এবং ভিজিটর ডিটেইলস পেতে গুগল এনালাইটিক্স ব্যাবহার করবেন। গুগল এনালাইটিক্স অত্যন্ত শক্তিশালী একটি টুল সাইট অওনারদের জন্যে।

বাংলায় সাইট হলে কি করবেন?

অ্যাডসেন্স দিয়ে যদি ভালো কিওয়ার্ড রিসার্চ করে আর্টিকেল সাজানো যায় এবং মাসে হাজার ডলার ইনকাম করা যায় সহজেই।

আপনার সাইট যদি হয় বাংলায় সেইক্ষেত্রে আপনাকে একটু বেশি এডভান্স হতে হবে। কারন বাংলায় ভালো CPC কিওয়ার্ড পাওয়া কষ্টসাধ্য।

বাংলায় আপনার সাইট হলে অবশ্যই সোশ্যাল মিডিয়া তে আপনাকে ব্যাপক শক্তিশালী হতে হবে।

আরো বিস্তারিত এবং কিভাবে কোন মেথড ব্যাবহার করতে হবে তা আমাদের সাইট এ আপডেট ভার্সন পাবেন শীঘ্রই।

গুগল অ্যাডসেন্স অ্যাপ্রুভাল পেতে যে শর্তগুলো পূরণ করতেই হবে

এবার অবশ্যই আয় হবে Adsense-এর বিকল্প সাইট থেকে

অনলাইন থেকে ইনকাম করার সঠিক গাইডলাইন। ১০০% কার্যকরী পোস্ট!

গুগল অ্যাডসেন্স থেকে টাকা ইনকাম হালাল না হারাম।

Comments (No)

Leave a Reply