ফেসবুকে নিজের ব্যবসা প্রচার করছেন?? তাহলে আপনার জন্য ছবিসহ

ফেসবুক শুধুমা্ত্র সময় নষ্ট করার জায়গা মনে করে যারা ফেসবুক ব্যবহার করা থেকে নিজেকে দূরে সরিয়ে রাখতে চায়, তাদের জন্য আমার আজকের পোস্ট। প্রায় ৯০০ মিলিয়ন মানুষ নিয়মিত ফেসবুক ব্যবহার করে।সুতরাং বুঝতে সমস্যা হওয়ার কথা না, যে কোন ব্যবসাকে প্রচারের জন্য পোস্টার, টিভি বিজ্ঞাপন কিংবা পত্রিকাতে বিজ্ঞাপন দেওয়ার চাইতে ফেসবুকের মাধ্যমে আরও বেশি এবং অবশ্যই কয়েকগুণ বেশি কাযকরীভাবে ব্যবসাকে প্রসার করা সম্ভব। কয়েকগুণ বেশি এই জন্য বলছি, কারণ এখানে টার্গেটেড ক্রেতার সাথে সরাসরি যোগাযোগ করা সম্ভব, সম্ভাব্য ক্রেতারা কিছু কেনার আগে পণ্যের মালিকের কাছ থেকে আরও কিছু বিষয় জেনে নেওয়ার সুযোগ পায় এবং সবশেষে নিশ্চিত হয়ে কিনতে পারে।

ফেসবুকে নিজের ব্যবসা প্রচার করছেন?? তাহলে আপনার জন্য এই পোস্টটি - পোস্টটি পড়ুন, ছবিসহ, উদাহরণসহ সব পাবেন

ব্যবসায়িক সুবিধা পেতে ফেসবুকের ব্যবহারঃ

১. বিশাল সংখ্যক জনগোষ্ঠী এই ফেসবুক নিয়মিত ব্যবহার করে। ফেসবুকের অফিসিয়াল হিসাব অনুযায়ী  বর্তমানে ৯০০ মিলিয়ন মানুষ ফেসবুক ব্যবহার করে এবং প্রতি ইউজার গড়ে প্রতি মাসে ৪০৫ মিনিট করে ফেসবুক ব্যবহার করে। এত মানুষের কাছে নিজের পণ্যকে পৌছানোর জন্য এটি সবচাইতে ভাল জায়গা।

২. যারা আপনার পণ্য কিংবা সেবা নেওয়ার জন্য খুজছে, তাদেরকে সহজে খুজে পাওয়া যায়।

৩. বর্তমান ক্রেতা এবং ভবিষ্যতের সম্ভাব্য ক্রেতার সাথে সংযুক্ত থাকা যায়।

৪. আপনার ব্যবসা কেন্দ্রিক একটি কমিউনিটি তৈরি করা যায় যেখানে সবাই পণ্যের বিষয়ে আলোচনা কিংবা অন্য যেকোন মতামত জানাতে পারে।

৫. আপনার ব্যবসা সম্পর্কিত কোন ব্লগিং কিংবা কোন আর্টিকেল লিখে থাকলে সেটিকে আরও বেশি মানুষকে পড়ানোর মাধ্যমে আকর্ষণ করার সবচেয়ে ভাল মাধ্যম ফেসবুক।

 ফেসবুক প্রোফাইল ,  ফেসবুক পেজ এবং ফেসবুক গ্রুপের  মধ্যে তুলনা

ফেসবুক পেজঃ কোন কোম্পানীর ব্রান্ডিংয়ের জন্য কোম্পানীর নামে পেজ তৈরি করতে হবে। অফিসিয়াল সকল নোটিশগুলো এখানে পোস্ট করতে হবে। পেজে শুধুমাত্র অ্যাডমিন পোস্ট করতে পারে। অ্যাডমিন হিসেবে এখানে পেজের নাম দেখায়, কোন ব্যক্তির নাম প্রকাশ পায়না। পেজের ফ্যানরা অ্যাডমিন কর্তৃক দেয়া বিভিন্ন পোস্টে কমেন্ট করতে পারে কিংবা message অপশনের মাধ্যমে কোম্পানী সম্পর্কে যেকোন প্রশ্ন করতে পারে।

ফেসবুক প্রোফাইলঃ অনেকে কোম্পানীর নামে প্রোফাইল তৈরি করে। এটা কখনও করবেননা। কারণ এটি মানুষের মাঝে বিরক্তের কারন তৈরি করে এবং অন্যদেরকে এ প্রোফাইলের সাথে ফ্রেন্ড হতে নিরুৎসাহিত করে। এক্ষেত্রে উচিত হবে, ব্যক্তির নামে প্রোফাইল তৈরি করা এবং তাদেরকে এ কোম্পানীর স্টাফ হিসেবে দেখানো। কারন বেশিরভাগ ক্ষেত্রে দেখা যায়, ব্যক্তিকে দেখেই কোন ব্যবসায়িক প্রতিষ্ঠানের প্রতি মানুষদের আস্থা তৈরি হয়। সুতরাং ব্যক্তিকে জনপ্রিয় করাটাও ব্যবসার মার্কেটিংয়ের অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ একটি ট্রিকস। যেমনঃ ***** ভাই **** আইটিতে গ্রাফিকসে কোর্স করায় দেখে গ্রাফিক্স ডিজাইন কোর্স করার ক্ষেত্রে মানুষ এ প্রতিষ্ঠানকে বাছাই করে।

ফেসবুক গ্রুপঃ ব্যবসায়িক পণ্যের কিংবা সেবার নামে গ্রুপ তৈরি করতে পারেন। অর্থাৎ যদি আপনার প্রতিষ্ঠান গ্রাফিকস সার্ভিস দিয়ে থাকে, তাহলে creative graphics work– এ নামে একটি গ্রুপ তৈরি করতে পারেন। এ গ্রুপে বিভিন্ন গ্রাফিকস সম্পর্কিত পোস্ট থাকবে। যারা গ্রাফিকসের কাজ পছন্দ করে, তাদের নিয়ে এটি একটি কমিউনিটি হবে।

যেহেতু এটি খুব গুরুত্বপূর্ণ একটি পোস্ট। সবার সংরক্ষনের সুবিধার জন্য পোস্টটিকে পিডিএফ আকারে তৈরি করেছি।

পিডিএফটির ডাউনলোড লিংকঃ ডাউনলোড ব্যবসার জন্য ফেসবুক

পুরো পিডিএফ টিতে যা যা পাবেনঃ

১. ব্যবসার প্রচারে কিভাবে ফেসবুক ব্যবহার করবেন

২. ব্যবসার প্রচারে ফেসবুক পেজ এর ব্যবহার

৩. ব্যবসার প্রচারে ফেসবুক গ্রুপের ব্যবহার

৪. ব্যবসার প্রচারে ফেসবুক প্রোফাইলের ব্যবহার

৫. ফেসবুকে আপনার কোন কোন ব্যবহার মানুষের মনে আপনার ব্যপারে বিরক্তির সৃষ্টি করবে।

৬. ফেসবুক একাউন্ট হ্যাকিং হতে রক্ষা করতে হলে কিছু সতর্কতা

ভাল লাগলে অবশ্যই সবার সাথে শেয়ার করবেন। কারণ মানুষ ফেসবুক ব্যবহার করার সঠিক পদ্ধতি না জানার কারনে এমন অবস্থা করে ফেলেছে, ফেসবুকে ঢুকলেই এখন বিরক্ত লাগে। এটি পড়ার পর যদি সঠিক ভাবে ফেসবুক ব্যবহার করতে পারে, তাহলেই এত বড় একটি পোস্ট লিখার সার্থকতা খুজে পাব।

Comments (No)

Leave a Reply