এই সাইটের কোন লেখা কপি করা নিষেধ

প্রতিদিন সতেজ ত্বক পেতে ৭টি কার্যকর টিপস !!!!

প্রতিটা দিন ত্বক যদি সতেজ দেখাতো, তবে কতোই না ভালো হতো। সকালে ফ্রেশ ত্বক নিয়ে বাইরে বেরুনোর পর দুপুর নাগাদ তা সজীবতা হারায়। এখানে কিছু পরামর্শ দিয়েছেন রূপচর্চা বিষয়ক বিশেষজ্ঞরা। এগুলো পরীক্ষা করে দেখুন। প্রতিদিন সতেজ দেখাবে আপনাকে।

১. লোমকূপ উন্মুক্ত করুন : কঠিন শোনালেও কাজটা সহজ। লোমকূপের গোড়া বাইরের ময়লায় বন্ধ হয়ে যায়। একে পুরোপুরি দূর করতে হলে সামান্য উষ্ণ পানিতে একটি পরিষ্কার কাপড় ভিজিয়ে নিন। এবার তা মুখে ঘষুণ। তাপে লোমকূপের গোড়া উন্মুক্ত হয়ে যায়।

২. ক্লিনজার ব্যবহার করুন : এবার ক্লিনজার ব্যবহার করতে পারেন। এর আগে ময়লা হাত দুটো সাবান দিয়ে ধুয়ে নিন। ত্বকে কোনো অ্যালার্জি সৃষ্টি করে না এমন একটি ক্লিনজার নিয়মিত ব্যবহার করবেন। গোটা মুখে ক্লিনজার লাগিয়ে আস্তে আস্তে ম্যাসাজ করুন।
৩. এক্সফোলিয়েট : দুই টেবিল চামচ পানিতে দুই টেবিল চামচ চিনি নিয়ে মেশাতে থাকুন। এতে আরো আধা টেবিল চামচ চিনি মেশান এবং নাড়তে থাকুন। এক সময় পাতলা পেস্টের মতো তৈরি হবে। এই পেস্ট গোটা মুখে লাগিয়ে আস্তে আস্তে টানা এক মিনিট ম্যাসাজ করুন। এটি এক্সফোলিয়েটের কাজ করবে।

৪. টোন : এবার মুখে টোন করার পালা। এক ফালি লেবু নিন। বিশ ফোঁটা রস চিপে আলাদা করুন। এবার দুটো আঙ্গুলের ডগায় রস মাখিয়ে তা মুখে লাগাতে থাকুন। ১০ সেকেন্ড লেবুর রস মুখে রাখুন এবং তারপর ধুয়ে ফেলুন।

৫. দ্বিতীয়বারের টোন : এবার যে লেবুর ফালি থেকে রস চিপে নিয়েছিলেন, তার ওপর আধা টেবিল চামচ মধু নিন। এবার মধুসহ লেবুর ফালিটি মুখে হালকাভাবে ঘষতে থাকুন। এ কাজটি টানা ৩০ সেকেন্ড করুন।

৬. লোমকূপ বন্ধ করুন : ওপরের ৫টি প্রক্রিয়ায় হালকা গরম পানি ব্যবহার করবেন। এতে লোমকূপ উন্মুক্ত অবস্থায় থাকবে। এবার স্বাভাবিক তাপমাত্রার পানি দিয়ে মুখ ধুতে থাকুন। এতে লোমকূপের গোড়া আবার বন্ধ হয়ে যাবে। মুখ মুছে এবং শুকিয়ে নেওয়ার পর ময়েশ্চার লোশন মেখে নিন।

৭. এ কাজটি সবচেয়ে জরুরি। তা হলো, ওপরের ৬টি প্রক্রিয়া প্রতিদিন করবেন। সামান্য সময়ের মধ্যে সামান্য কিছু উপাদানের মাধ্যমে আপনি পেতে পারেন সতেজ ত্বক।

Comments (No)

Leave a Reply