কুমিল্লায় ভোরের হাটে দুই কোটি টাকার দুধ বিক্রি

কুমিল্লায় ভোরের হাটে দুই কোটি টাকার দুধ বিক্রি সকালে বাজারে গিয়ে দেখা যায়, কুয়াশার চাদর ভেদ করে সাইকেল, রিকশা ও সিএনজি অটোরিকশা দিয়ে খামারিরা দুধ নিয়ে আসছেন। পাইকাররা দুধ কিনে ড্রামে ঢেলে রাখছেন। রাস্তার দুই পাশে বিক্রেতাদের সারি।

বাতাসে ছড়িয়ে পড়ছে দুধের মিষ্টি ঘ্রাণ। পাইকাররা দুধ কিনে ড্রামে ভরছেন। সহযোগীরা সেই ড্রাম পিকআপ ভ্যানে তুলছেন। প্রতিদিন ২০ জনের মতো পাইকার এ বাজার থেকে প্রায় অর্ধেক দুধ কিনে নিয়ে যান। বাকি দুধ বিক্রি হয় খুচরায়

কুমিল্লায় ভোরের হাটে দুই কোটি টাকার দুধ বিক্রি 1

কুমিল্লার লালমাই উপজেলার বাগমারা বাজার। কুমিল্লা-নোয়াখালী আ লিক মহাসড়ক সংলগ্ন এ বাজারে প্রতিদিন ভোরে গরুর দুধের হাট বসে। এখানে খামারিরা বিক্রি করেন সাড়ে ১২হাজার লিটার দুধ। প্রতি কেজি ৪০ থেকে ৫০ টাকা দরে বিক্রি করেন তারা। দৈনিক ৬ থেকে সাড়ে ৬ লাখ টাকার দুধ বিক্রি হয় এ বাজারে। মাসে বিক্রি হয় প্রায় দুই কোটি টাকার দুধ।

লালমাই উপজেলার দুই হাজার খামারি দুধের গরু পালন করেন। মূলত ওই খামারিরাই দুধ বিক্রি করেন এ হাটে। তাদের মধ্যে ক্ষুদ্র ও মাঝারি ধরনের খামারিরা দুধ বিক্রি করেন এ হাটে। বড় খামারি কয়েকজন এ হাটে দুধ বিক্রি করলেও বেশিরভাগ বড় খামারি সরাসরি কুমিল্লা ও লাকসামের বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানে দুধ বিক্রি করেন। এ হাটের বেশিরভাগ দুধ আসে লালমাই উপজেলার সিলোনিয়া, হাজতিয়া ও বাগমারা বাজারের আশপাশের গ্রাম থেকে।

কুমিল্লায় ভোরের হাটে দুই কোটি টাকার দুধ বিক্রি 2

উপজেলার পেরুল উত্তর, পেরুল দক্ষিণ, ভোলাইন উত্তর, ভোলাইন দক্ষিণ এবং বাগমারা- এ পাঁচ ইউনিয়ন থেকেই আসে প্রায় ১২ হাজার লিটার দুধ। বাকি ৫০০ লিটার দুধ আসে পার্শ্ববর্তী লাকসাম ও বরুড়া উপজেলা থেকে। মাঝেমাঝে কমে আসে দুধের দাম। বিশেষ করে শীত ও বর্ষা মৌসুমে দুধের তেমন চাহিদা থাকে না।

দামও পাওয়া যায় অপেক্ষাকৃত কম। খামারিরা বলছেন, প্রাণিসম্পদ অধিদপ্তরের সঠিক পৃষ্ঠপোষকতা থাকলে ও দুধ সংগ্রহের জন্য আলাদাভাবে কাজ করা হলে তাদের লোকসানে পড়ার ঝুঁকি কমে আসবে।

সকালে বাজারে গিয়ে দেখা যায়, কুয়াশার চাদর ভেদ করে সাইকেল, রিকশা ও সিএনজি অটোরিকশা দিয়ে খামারিরা দুধ নিয়ে আসছেন। পাইকাররা দুধ কিনে ড্রামে ঢেলে রাখছেন। রাস্তার দুই পাশে বিক্রেতাদের সারি। বাতাসে ছড়িয়ে পড়ছে দুধের মিষ্টি ঘ্রাণ। পাইকাররা দুধ কিনে ড্রামে ভরছেন। সহযোগীরা সেই ড্রাম পিকআপ ভ্যানে তুলছেন। প্রতিদিন ২০ জনের মতো পাইকার এ বাজার থেকে প্রায় অর্ধেক দুধ কিনে নিয়ে যান। বাকি দুধ বিক্রি হয় খুচরায়।

কুমিল্লায় ভোরের হাটে দুই কোটি টাকার দুধ বিক্রি 3

আমুয়া গ্রামের মোকসেদ মিয়া এনেছেন ২৫ লিটার দুধ। নগদ দাম পেয়ে তিনি খুশি। কখনও বাজার পড়ে যায়, লিটার ৩০ টাকা হয়ে যায়। এতে তাদের লোকসান হয়। তিনি বাজার স্বাভাবিক রাখার আবেদন জানান।

বাজারের পাইকার মেহেরকুল দৌলতপুর গ্রামের আক্তার হোসেন বলেন, এখানে তিনি আট বছর ধরে দুধ সংগ্রহ করেন। তিনি প্রতিদিন ১২০০ থেকে ১৩০০ লিটার দুধ সংগ্রহ করেন। এ বাজারে এরকম ২০ জন পাইকার দুধ সংগ্রহ করেন।

সিলোনিয়া গ্রামের আজিজ ডেইরি ফার্মের পরিচালক ও জেলা ডেইরি মালিক অ্যাসোসিয়েশনের সাধারণ সম্পাদক মো.আবদুল আজিজ বলেন, বাগমারা বাজারে কয়েক যুগ থেকে দুধের হাট বসে। আমরাও প্রথমে এখানে দুধ বিক্রি করতাম। এখন নিজেরা কুমিল্লায় সরাসরি সরবরাহ করি। বাকিটা দই ও মিষ্টি তৈরির কাজে লাগাই।

কুমিল্লায় ভোরের হাটে দুই কোটি টাকার দুধ বিক্রি 4

এছাড়া কুমিল্লার সুয়াগাজী, চকবাজার, বুড়িচং বাজারে দুধের পাইকারি বাজার রয়েছে। শীতে ও ভারী বর্ষায় গরুর দুধের চাহিদা কম থাকে। সে সময় দাম কমে যায়। দুধের নতুন বাজার ও দুধ সংরক্ষণ করা গেলে খামারিরা উপকৃত হবে। এ নিয়ে জেলা প্রাণিসম্পদ কর্মকর্তাদের সাথে কথা বলেছি।

জেলা প্রাণিসম্পদ কর্মকর্তা ডা. নজরুল ইসলাম বলেন, “আমরা বিভিন্ন পয়েন্টে দুধ সংগ্রহ এবং সংরক্ষণের বিষয়ে কর্তৃপক্ষকে জানিয়েছি। আশা করছি, একটি প্রকল্পের মাধ্যমে খামারিদের পাশে দাঁড়াতে পারবো।”

Comments (No)

Leave a Reply

এই সাইটের কোন লেখা কপি করা সম্পুর্ন নিষেধ