এই সাইটের কোন লেখা কপি করা নিষেধ

এসইও ফ্রেন্ডলি আর্টিকেল লেখার নিয়ম

ওয়েবসাইটের মালিকদের সাথে সাথে আর্টিকেল লেখকদেরও অবশ্যই এসইওর উপর যথাযথ জ্ঞান থাকা জরুরী। লেখককে তার লেখা আর্টিকেল সার্চ ইঞ্জিনে গ্রহণযোগ্য করে তোলার জন্য এসইও জানতে হবে। আর ওয়েবসাইটের মালিকগন যদি তাদের ব্যবসা অনেকদূর পর্যন্ত সম্প্রসারিত করতে চান তবে এসইওর শরণাপন্ন হতে হবে। তাছাড়াও শখের লেখক সহ পেশাদার লেখকদের এসইও জ্ঞান ছাড়া কোন গতি নেই। পেশাদার লেখকদের যেমন ফ্রিলান্সার লেখকদের ক্ষেত্রে এসইও ফ্রেন্ডলি আর্টিকেললেখা বাধ্যতামূলক কারণ লেখার জন্য গ্রাহক তাকে পারিশ্রমিক দিচ্ছেন।

 

এখন ছোটবড় সব ব্যবসাপ্রতিষ্ঠান অনলাইনমুখী হচ্ছে, যেখানে তারা তাদের পণ্য বাজারজাত করনের বিরাট সম্ভাবনা লক্ষ করছে যার ফলে তারা ওয়েবসাইট তৈরিতে ইনভেস্ট করছে। এখন কোম্পানি ওয়েবসাইটের মাধ্যমে পণ্যগুলো তুলেধরতে বেশি আগ্রহী। যখনি কোন কোম্পানি ইন্টারনেট ভিত্তিক বাজারে ঢুকেপরবে তখন বাজারে টিকে থাকতে হলে তাদের অবশ্যয় বিজ্ঞাপন দিতে হবে। আর ঠিক তখনি একজন লেখকের কাজ শুরু হয়। সবাই জানি যে একটি ওয়েবসাইট প্রমোট করতে খুব ভাল মানের আর্টিকেল অপরিহার্য, আর প্রত্যেক লেখকের দায়িত্ব হল ভাল ও তথ্য সমৃদ্ধ আর্টিকেল প্রদান করা। কিছু ক্ষেত্রে শুধু আর্টিকেল লিখেই দায়িত্ব শেষকরা যায় না, কিছু কোম্পানি ভালমানের লেখার সাথে সাথে কিছুটা এসইও সার্ভিসও আশাকরে থাকে। আবার লেখালেখির পাশাপাশি বাড়তি কিছু টাকার আশা আরেকটি কারণ হতেপারে এসইও শেখার জন্য। একজন লেখকের ভালমানের লেখার দক্ষতার পাশাপাশি এসইওর জ্ঞান থাকলে যে কোন লেখক তাদের গ্রাহকের ওয়েবসাইটের ভালভাবে প্রচার ও প্রসার ঘটাতে পারবে। সেই সাথে তাকে সাম্প্রতিক বিষয়গুলো ভালভাবে আয়ত্তে রাখতে হবে।

বর্তমান সময়ে লেখকদের এসইও শিখতে হবে অথবা নিজের পেশাটি এমন কারোর কাছে হারাতে হবে যে অন্তত এসইওর সাধারণ ধারনা রাখে।

এসইও হল এমন একটি বিষয় যা অনলাইনে যারাই ব্যবসা বা অন্য কোন কাজ করছেন তাদের সকলের জানা থাকা জরুরি। পেশাদারী লেখকদের জন্য এখন শুধুমাত্র ভাল আর্টিকেল লেখা ও তা প্রকাশ করাতে সীমাবদ্ধ থাকলে চলবে না সেইসাথে আর্টিকেলটি প্রমোট করতে জানা থাকতে হবে। আর তবেই এসইও ফ্রেন্ডলি আর্টিকেল লেখা সম্ভব।

Comments (No)

Leave a Reply